আগের ম্যাচের জাপানের বিপক্ষে হারলেও দুর্দান্ত প্রতিরোধ গড়েছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। প্রথম ম্যাচে বড় হারের লজ্জা তো আর মুছে যাওয়ার নয়। তবে নারী ফুটবলের পরাশক্তি জাপানের কাছে ০-৩ গোলে হারলেও দ্বিতীয়ার্ধে কোন গোল হজম করেনি বাংলাদেশের কিশোরীরা। সেই ম্যাচে লড়াকু মনোভাবের পর থেকেই অস্ট্রেলিয়া বধের স্বপ্ন দেখে আসছিলেন কৃষ্ণা-সানজিদারা।

থাইল্যান্ডে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের মূলপর্বে রোববার সেই স্বপ্নকে প্রায় মুঠোবন্দি করে ফেলেছিলেন লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। কিন্তু ৮৩ মিনিটের গোলে স্বপ্ন ভেঙেছে বাংলাদেশের। হেরে গেছে ২-৩ গোলে। ৭৮ মিনিট পর্যন্ত ২-১ এ এগিয়ে থেকেও হার!

চোনবুরির ইনিস্টিটিউট অব ফিজিক্যাল এডুকেশন ক্যাম্পাস মাঠে অনুষ্ঠিত বিকেলের ম্যাচে শুরুতে গোল হজম করলেও পরে সেটি শোধ করে দেয় বাংলাদেশ। এরপর স্কোর লাইন ২-১ করে ফেলে গোলাম রব্বানী ছোটনের দল। যা ধরে রাখা যায়নি। অস্ট্রেলিয়া ২-২ করে ফেলার পর, শেষ দিকে আরেক গোল করে। স্বপ্ন ভেঙ্গে দেয় বাংলাদেশের মেয়েদের। বাংলাদেশের পক্ষে গোল দুটি এসেছে শামসুন্নাহার ও মণিকার পা থেকে।

এদিন ম্যাচের ৯ মিনিটে গোল হজম করে বাংলাদেশ। বিরতির ঠিক আগে ৪৫ মিনিটে সমতায় আনে বাংদেশের মেয়েরা। বিরতি থেকে ফেরে ম্যাচের ৫১ মিনিটে গোল করে বাংলাদেশ। তবে ৭৮ মিনিটে অস্ট্রেলিয়া সেই গোল পরিশোধ করে। ৮৩ মিনিটে তারা আরেকটি গোল করলে স্বপ্নভঙ্গের বেদনায় পুড়তে হয় লাল-সবুজের মেয়েদের দলটাকে। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকার লাল কার্ড দেখলে ১০ জন নিয়ে খেলতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

এর মধ্যে দিয়ে শেষ হলো বাংলাদেশর এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ ফুটবলের এবারের মিশন। ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে উত্তর কোরিয়ার কাছে ০-৯ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ।

মন্তব্য

টি মন্তব্য করা হয়েছে